Monday, February 6, 2023

আজ বিশ্বকর্মা পুজা

নেহাল আহমেদ, রাজবাড়ীঃ  হিন্দু শাস্ত্র অনুসারে, ব্রহ্মা যখন মহাবিশ্ব সৃষ্ট করেছিলেন, তখন ভগবান বিশ্বকর্মা এটিকে সাজানোর কাজ করেছিলেন। তাকে এই মহাবিশ্বের সর্বশ্রেষ্ঠ এবং প্রথম প্রকৌশলী বলে মনে করা হয়। কন্যা সংক্রান্তির দিনে ভগবান বিশ্বকর্মার জন্মবার্ষিকী পালিত হয়।

আজ দেশ জুড়ে পালিত হচ্ছে বিশ্বকর্মা পুজো।বিশ্বকর্মার আজকের দিনে নবনির্মাণ এবং নব সৃজন কাজের সঙ্গে যুক্ত হয়ে দক্ষ কর্মীর দায়িত্ব দেশকে নিজের কাজের মধ্যে দিয়ে নতুন উচ্চতায় নিয়ে যাওয়ার দিন।হিন্দু মতে ভগবান বিশ্বকর্মা ব্রহ্মার পুত্র। ভগবান বিশ্বকর্মা কৃষ্ণের জন্য বানিয়েছিলেন দ্বারকা নগরী এবং তিনি তাঁর পিতা ভগবান ব্রহ্মাকে সাহায্য করেছিলেন এই পৃথিবী তৈরি করতে। কথিত আছে, ভগবান বিশ্বকর্মা স্বর্গের সমস্ত দেব-দেবীর ভবন বানিয়েছেন। পাশাপাশি প্রত্যেক দেবদেবীর অস্ত্রশস্ত্র এবং যানবাহনও তিনি তৈরি করেছেন। প্রতিবছর ১৭ ই সেপ্টেম্বর দিনটিতে বিশ্বকর্মা পূজা পালিত হয়।হিন্দু ধর্মে সব দেব-দেবীর পুজোর তিথি স্থির হয় চন্দ্রের গতি প্রকৃতির উপর ভিত্তি করে। শুধুমাত্র বিশ্বকর্মা পুজোর তিথি স্থির হয় সূর্যের গতি প্রকৃতির উপর নির্ভর করে। সূর্য যখন রাশি পরিবর্তন করে সিংহ রাশি থেকে কন্যা রাশিতে গমন করে, সেই দিনই পালিত হয় বিশ্বকর্মা পূজা। অর্থাৎ প্রতি বছর ভাদ্রমাসের সংক্রান্তি বা কন্যা সংক্রান্তির দিনেই বিশ্বকর্মা পুজো করার প্রথা প্রচলিত। বিশ্বকর্মা হলেন দেবশিল্পী। স্থাপত্য, শিল্প, সৃষ্টি, নির্মাণই তাঁর কর্ম।

শাস্ত্রমতে দেবগুরু বৃহস্পতির ভগিনী যোগসিদ্ধা এবং অষ্টম বসু প্রভাস পুত্র বিশ্বকর্মা। পৌরাণিক কাহিনী অনুসারে, প্রাচীনকালের সমস্ত অস্ত্রশস্ত্র ও প্রাসাদগুলি ভগবান বিশ্বকর্মাই নির্মাণ করেছিলেন। ভগবান ব্রহ্মা বিশ্বজগতের সৃষ্টির দায়িত্ব তাঁর হাতেই অর্পণ করেন।

সর্বশেষ পোষ্ট

এই ধরনের আরো সংবাদ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here