Sunday, February 5, 2023

গোয়ালন্দে অগ্নিকান্ডে দুজনের মৃত্যু ও ২টি বসত ঘর পুড়ে ছাই

মোজাম্মেল হক লালটু, গোয়ালন্দ: রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া ৮ নংওয়ার্ড আনছার বেপারী পাড়া মো. ঠান্ডু মোল্ল্যা(৬০) বসত বাড়ীতে বৈদ্যুতিক সট সার্কিট থেকে অগ্নিকান্ডের সূত্রপাত ঘটেছে। অগ্নিকান্ডে শিশুসহ দুজন নিহত হয়েছে ও দুটি বসত ঘর পুড়ে গেছে। রোববার রাত ১০ টার দিকে এঘটনা ঘটে।
অগ্নিকান্ডে নিহতরা হলো, মৃত্যু রকমান মোল্ল্যার স্ত্রী ও ঠান্ডু মোল্ল্যার মা আছিয়া( বড়ু বিবি) ৯০, রমজান মোল্ল্যার মেয়ে তাছমিয়া আক্তার (৮)।

সরেজমিনে জানা যায়, ঠান্ডু মোল্ল্যার বসত ঘরের এক রুমে তার মা শুয়ে ঘুমিয়ে ছিলো অন্য রুমে তার বড় ছেলে রমজান মোল্ল্যার মেয়ে ঘুমিয়ে ছিলো। তার মায়ের রুমে একটি খাঁচা ফ্যান গুরছিলো হঠাৎ করে ফ্যানটি বন্ধ হয়ে আগুন ধরে যায়। সে সময় রমজান মোল্ল্যার স্ত্রী তাছমিয়া মা, মরিয়ম তাৎক্ষণিক ভাবে মেন সুইচ খুঁজে। কিন্তু মেন সুইচ খুঁজে না পেয়ে চিৎকার করে। তার চিৎকারে আশ পাশের লোকজন এসে দেখে সারা ঘরে আগুন লেগে গেছে তারা তাৎক্ষণিক ভাবে আগুন নিবাতে চেষ্টা করে কিন্তু পারে না।
অন্য ঘরে শাশুড়ি তার ছোট মেয়েটি নিয়ে ঘর থেকে বেরিয়ে যায়। ততক্ষনে ফ্যানটি পুড়ে তার দাদী শাশুড়ি গায়ের উপর পড়ে যায়। তখন পুরো ঘরে আগুন লেগে যায়। পাশের রুমে তাছমিয়া ঘুমিয়ে থাকায় সে আর উঠতে পারে না সে সময় আগুনে পড়ে মারা যায়।

নিহত তাছমিয়া মা মরিয়ম বলেন, খাচা ফ্যান থেকে আগুনের সূত্রপাত ঘটেছে। মহুুর্তের মধ্যে আগুন সারা ঘরে ছড়িয়ে পড়েছে। আমার ছোখের সামনে আমার দাদী শাশুড়ি ও আমার মেয়ে পুড়ে মারা গেলো আমি কিছুই করতে পারলাম না।

পাশের বাড়ীর রফিকুল বলেন, বৈদ্যুতিক সর্ট সার্কিট থেকেই আগুন লেগেছে। আমরা এলাকার সবাই মিলে আগুন নেবাতে চেষ্টা করেছি।কিন্তু আগুন নেবাতে পারিনি। পরে ফায়ার সার্ভিস এসে প্রায় এক ঘন্টা চেষ্টা করে আগুন নিবাতে সক্ষম হয়েছে। দু জন পুড়ে মারা গেছে।ঠান্তু মোল্লার মায়ের ও নাতীনের কিছু হাড় ছিলো আর কিছুই ছিলো না সবি পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। কি মমার্তিক মৃত্যু চোখের সামনে ঘটে গেলো।

গোয়ালন্দ ফায়ার সার্ভিস স্টেশন লিডার মো. সাবেকুল ইসলাম বলেন, আমরা খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের পুরো টিম দ্রুত ঘটনা স্থানে গিয়ে এক ঘন্টা চেষ্টা করে আগুন নিবাতে সক্ষম হই এবং দু জনের মৃত্যু দেহ উদ্বার করতে সক্ষম হয়েছি।

সর্বশেষ পোষ্ট

এই ধরনের আরো সংবাদ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here