Monday, February 6, 2023

ট্রান্সপ্লান্ট মেশিনে ধান রোপন কৃষকের সময় ও অর্থ বাচায়

বিশেষ প্রতিনিধি(গোয়ালন্দ): কৃষি ফলন বাড়াতে রাজবাড়ীর গোয়ালন্দে সমলয় পদ্ধতিতে ট্রান্সপ্লান্ট মেশিনের মাধ্যমে জমিতে বোরো ধান রোপন কার্যক্রম উদ্বোধন করা হয়েছে। আজ রবিবার (২২ জানুয়ারী) বেলা একটায় উপজেলার দেবগ্রাম ইউনিয়নের তেনাপচা গ্রামের এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন রাজবাড়ির জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপপরিচালক এস এম সহীদ নুর আকবর।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাকির হোসেন এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন গোয়ালন্দ পৌরসভার মেয়র নজরুল ইসলাম মন্ডল, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ আশরাফুর রহমান, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান নার্গিস পারভীন, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা আবু সাইদ মন্ডল সহ বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা ও কর্মচারি বৃন্দ।

গোয়ালন্দ উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, জনসংখ্যা বৃদ্ধির সাথে সাথে কমছে কৃষি জমি। তাই স্বল্প জমিতে অধিক ধান উৎপাদন করে মানুষের খাদ্যের চাহিদা পূরণের লক্ষ্যে কৃষি মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনায় উন্নত প্রযুক্তির মাধ্যমে সমলয় পদ্ধতিতে বোরো ধান চাষাবাদ শুরু হয়েছে। ২০২২-২০২৩ অর্থবছরে সমলয় পদ্ধতিতে ৫০ একর জমিতে বোরো ধানের আবাদ হচ্ছে। রোপন পদ্ধতি দেখে কৃষকরা উদ্বুদ্ধ হয়েছেন।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা খোকন উজ্জামান জানান, সরকারি কৃষি প্রণোদনা কার্যক্রমের আওতায় সমলয় ব্লকের স্থানীয় ৭০ জন কৃষক মাটিভর্তি ট্রেতে বপন করছে ধানবীজ। সমলয় প্রণোদনার আওতায় চাষাবাদের নতুন মাত্রায় মেশিন দিয়ে ৫০ একর জমিতে রোবো ধানের চারা রোপন করা হয়।

কৃষির সর্বাধুনিক কৃষি প্রযুক্তি ব্যবহারে উচ্চ ফলনশীল একই জাত ব্যবহার, ট্রেতে বীজ বপন, কম বয়সের চারা রোপন, চারা রোপনে রাইস ট্রান্সপ্লান্টার ব্যবহার, সুষম সার ব্যবহার, আইল ফসল, ধান কর্তনে কম্বাইন হারভেস্টার ব্যবহার করে উৎপাদন বাড়ানো, উৎপাদন খরচ সাশ্রয় করা, কৃষি যান্ত্রিকীকরণের মাধ্যমে ভরা মৌসুমে কৃষি শ্রমিকের সংকটের সমাধান সম্ভব হবে এই সমলয় চাষাবাদে। এ বিষয়ে কৃষকদের কারিগরি সুবিধা ও সার্বক্ষণিক পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছেন তারা।

উপজেলার দেবগ্রাম ইউনিয়নের উত্তর চর পাচুরিয়া গ্রামে ৭০ জন কৃষক একসাথে ৫০ একর জমিতে বোরো ধান রোপন করেছে। এতে বীজ বপন হয় ট্রের মাধ্যমে ২২-২৪ দিনের চারাগুলো রাইস ট্রান্সপ্লান্টার মেশিন দিয়ে রোপন করা হয়। রোপনের সময় এলাকার কৃষকদের মাঝে কৌতূহল দেখা যায়।

এ বিষয়ে দেবগ্রাম ইউনিয়নের ব্লকের প্রধান কৃষক ইদ্রিস আলী শেখ বলেন, উপজেলা কৃষি অফিস থেকে ৭০ জন কৃষক সংঘবদ্ধ হয়ে সমালয় প্রণোদনার আওতায় রোরো ধান আবাদের প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে এ বছর এই প্রথম প্রযুক্তির মাধ্যমে আবাদের জন্য ৫০ একর জমি প্রস্তুত করেছি। আমাদের উপজেলা কৃষি অফিস থেকে সার্বক্ষণিক দেখাশোনা করছেন।

তেনাপচা গ্রামের কৃষক আইজদ্দিন বলেন, একসাথে ৭০ জন কৃষক প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে সমলয় পদ্ধতিতে বোরো ধান চাষের জন্য ৫০ একর জমি প্রস্তুত করে আজ মেশিন দিয়ে রোপন শুরু করেছি।

এ বিষয়ে জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক এস এম সহীদ নুর আকবর জানান, সরকারের বিভিন্ন প্রণোদনা কর্মসূচির আওতায় উপজেলার দেবগ্রাম ব্লকে সমলয় পদ্ধতিতে ৫০ একর জমিতে বোরো ধান রোপন করা হয়েছে। সার ও কীটনাশক প্রদানসহ ধান কাটার কাজ সরকারি উদ্যোগে করা হবে।

 

rj/srj/gln

সর্বশেষ পোষ্ট

এই ধরনের আরো সংবাদ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here