Monday, February 6, 2023

মধ্যযুগীয় কায়দায় পায়ের শিকল পরিয়ে যুবককে নির্যাতন

উজ্জল হোসেন, পাংশা: রাজবাড়ীর পাংশায় পাওনা টাকা পরিশোধ করতে না পারায় পায়ে শিকল পরিয়ে মধ্যযুগীয় কায়দায় তিন দিন যাবত বেঁধে রেখে যুবককে নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে পাংশা পৌর এলাকার ৫ নং ওয়ার্ডের শহিদ শেখের বাড়িতে।

নির্যাতনের শিকার মিঠু মোল্লা (৩৩) তিনি পাবনা জেলার সুজানগর উপজেলার কাদুয়া গ্রামের মৃত দিনু মোল্লার ছেলে।

ঘটনার বিষয় মিঠু মোল্লার কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন গত পরশুদিন উপজেলার হাবাসপুর পদ্মা নদীর ঘাট থেকে আমাকে ধরে নিয়ে এসে পায়ে শিকল পরিয়ে বেঁধে রাখে শহীদ শেখ ও তার ছেলেরা।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় পৌর এলাকার সত্যজিৎপুর গ্রামের আবুল শেখের ছেলে শহিদ শেখের বাড়ির ঘরের বারান্দায় খুঁটির সঙ্গে পায়ে শিকল পড়িয়ে বেঁধে রাখা হয়েছে ঐ যুবকে। কি কারণে তাকে বেঁধে রাখা হয়েছে জানতে চাইলে বাড়ির মালিক শহিদ শেখ বলেন, আমি সহ আরো কয়েকজন তার কাছে টাকা পাব সে টাকা দেয়নি বলে তাকে বেঁধে রাখা হয়েছে। তবে টাকা নেওয়ার কথা স্বীকার করেছেন ওই যুবক।

এ বিষয়ে পাংশা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মাসুদুর রহমান জানান, ঘটনা শোনার পর পর ফোর্স পাঠিয়ে ভিকটিমকে উদ্ধার করে থানায় আনা হয়েছে, তবে উক্ত বিষয়ে মধ্যযুগীয় কায়দায় বর্বর নির্যাতনের ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। তবে ভিকটিম যেহেতু টাকা পয়সা আত্মসাৎ করেছে যদি তারা ভিকটিমের বিরুদ্ধে মামলা করতে চাইলে মামলা করতে পারবে।

সর্বশেষ পোষ্ট

এই ধরনের আরো সংবাদ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here