Monday, May 27, 2024

শ্রমিক ইউনিয়নের অনিয়মের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন

স্টাফ রিপোর্টার: রাজবাড়ী জেলা বাস মিনিবাস ও কোচ সড়ক পরিবহন শ্রমিক (২২৮৪) ইউনিয়নের অনিয়মের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন করেছ সংগঠনের শ্রমিকবৃন্দ। রাজবাড়ী শ্রীপুর বাস টার্মিনালে ৮ই নভেম্বর বিকালে সাংবাদিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে ।

সংবাদ সম্মেলনে রাজবাড়ী প্রেস ক্লাবের সভাপতি এড. খান মোঃ জহুরুল হক,যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর হোসেন, ভোরের কাগজ পত্রিকার প্রতিনিধি লিটন চক্রবর্তি , আমাদের সময় পত্রিকার প্রতিনিধি সোহেল রানা , রাজবাড়ী কন্ঠের প্রতিনিধি আবু সাইদ, যমুনা টিভির প্রতিনিধি রুবেল হোসেন, ৭১ টিভির প্রতিনিধি মেহেদী হাসান, মাছরাঙা টিভি’র প্রতিনিধি মুনিম আহমেদ , সাংবাদিক কবির হোসেন ,এস এম রিয়াজুল করিম সহ স্থানীয় প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক্স মিডিয়ার সাংবাদিকগণ উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদ সম্মেলনে লিখত বক্তব্য পাঠ করেন সাবেক শ্রমিক সংগঠনের ক্যাশিয়ার ও বর্তমানে সংগ্রাম কমিটির সদস্য সচিব শ্রী সুধীর রায় চক্রবর্তী। এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন শ্রমিক সংগঠনের সাবেক সম্পাদক ও সংগ্রাম কমিটির সদস্য আব্দুল্লাহ আল মামুন, সংগ্রাম কমিটির সদস্য জাহাঙ্গীর শরীফ, আরাফাত খন্দকার, সাজ্জাদ হোসেন সরু, খোকন প্রামানিক সহ অন্যান্য সদস্যবৃন্দ। রাজবাড়ী জেলা বাস মিনিবাস ও কোচ সড়ক পরিবহন শ্রমিক (২২৮৪) ইউনিয়নের ৫শতাধিক শ্রমিক মিলে সংগ্রাম কমিটি গঠিত হয়েছে বলে জানানো হয়েছে।

VIDEO:  YOUTUBE: RAJBARI JOURNAL 

সাংবাদিক সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে শ্রী সুধীর রায় চক্রবর্তী বলেন, ১৯৯৬ সালে জননেত্রী, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ক্ষমতায় এসে শ্রমিক অধিকার প্রতিষ্ঠায় অবদান রেখেছেন। ২০০৯ সাল হতে ধারাবাহিক ক্ষমতায় আসীন হয়ে বাংলাদেশকে উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত করেছেন। শ্রমিকদের আত্মমর্যাদা, অধিকার, সামাজিক ও আর্থিক নিরাপত্তা দিয়েছেন। আমরা রাজবাড়ী জেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন রেজি:২২৮৪ বর্তমান রাজবাড়ী জেলা বাস, মিনিবাস ও কোচ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সর্বস্তরের শ্রমিকগণ মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞ।

কিন্তু সেই সময় রাজবাড়ী জেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ শ্রমিকদের প্রতি একপ্রকার নির্যাতন, জুলুম, অত্যাচার ও সার্বিক অধিকার নিরাপত্তা বিঘ্নিত করার প্রয়াসে অত্র সংগঠনের তথা কথিত সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক ও ক্যাশিয়ার রাষ্ট্রবিরোধী, স্বাধীনতা বিরোধী পাকিস্তানীদের কু-পরামর্শে স্বাধীনতার
পক্ষের সাধারণ শ্রমিকদের প্রতি অত্যাচার তথা অত্র সংগঠনের ২০ কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছেন। প্রায় ৯ বছর যাবত নির্বাচন অনুষ্ঠানের কোন ব্যবস্থা করেন নাই। সংগঠনের কোন অডিট কমিটি ও হিসাব-নিকাশ করেন নাই। সকল কার্যকরী ব্যাংক হিসাব জমার বিধান থাকলেও তা করেননি। সংস্থার গাড়ি বিক্রি করেছেন
বেআইনিভাবে যা গঠণতন্ত্র বহির্ভূত, দোকান লীজ ও ভাড়া, এককালীন চাঁদা, শ্রমিক কল্যাণ চাঁদা উত্তোলন করেছেন রশিদসহ যা সংগঠনের ব্যাংক হিসাবে জমা করেননি।

অবসর ফান্ডে এবং মৃত শ্রমিকদের এককালীন অনুদান প্রদান করেন নাই। রাজবাড়ি সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক ও ক্যাশিয়ারের সীমাহীন অনিয়ম, দুর্নীতি ও অর্থ আত্মসাৎ এর বিচার প্রার্থনায় শ্রম ও যুগ্ম পরিচালক ফেডারেশন, দুর্নীতি দমন কমিশনে, মন্ত্রণালয় ও স্থানীয় সকল প্রশাসনের কার্যালয়, দপ্তর, অধিদপ্তরে লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয় গত ২৫/০৬/২০২৩, ১২/০৭/২০২৩ ও ০৬/০৮/২০২৩ ইং তারিখে। তৎপ্রেক্ষিতে ফেডারেশনের কার্যালয় হতে গত ২৪/০৯/২০২৩ ইং তারিখ একখানা অফিস আদেশ প্রদান করে।

অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইন ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সাংবাদিক ভাইদের মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সহ সংশ্লিষ্ট সকলের কাছে বিচার প্রার্থনা করছি।”

 

প্রেস ব্রিফিং

সর্বশেষ পোষ্ট

এই ধরনের আরো সংবাদ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here