Monday, February 26, 2024

অপরাধ ঢাকতে উল্টো মিথ্যা মামলা দায়েরের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ  অপরাধ ঢাকতে রাজবাড়ী আদালতে উল্টো মিথ্য মামলা দায়ের করেছে রাজবাড়ী জেলা সদরের আলীপুর ইউনিয়নের ইন্দ্রনারায়নপুর গ্রামের মোঃ হানিফ সেখের ছেলে মো. আব্দুল মুন্নাফ। গত ২৮/০৩/২০২২ইং তারিখ সোমবার রাজবাড়ীর বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে উদ্দেশ্য প্রনিতভাবে রাজবাড়ী ডিজিটাল প্রেসক্লাবের সভাপতি সাংবাদিক এস.এম. রিয়াজুল করিমসহ ৪ জনের নামে হুমকি-ধামকি প্রদানের এই মিথ্যা মামলা দায়ের করা হয়। মামলা নং মিস.পি ২৯০/২২। ধারাঃ ১০৭/১১৪/১১৭(গ)। ধার্য্য তারিখ ২৪/৫/২০২২ইং।

আর এই, মামলায় আসামিরা হলো- সাবেক ইউপি সদস্য মো. কামাল সরদার, ব্যাবসায়ী মো. দবির মন্ডল, ও মো. মজিবর শিকদার। মামলার আরজিতে, তাদের বিরুদ্ধে বাদীর পিতার নামীয় সম্পতি জবর-দখল, গাছ কর্তন ও জোড় করে বেড়া দিতে যাওয়া এবং হত্যার হুমকির মিথ্যা অভিযোগ আনা হয়েছে।

এ মামলার ঘটনাসূত্রে অনুসন্ধানে জানাযায়, পেশাগত কর্মের সুবিধার্থে সাংবাদিক রিয়াজুল করিম রাজবাড়ী পৌরসভাধীন লক্ষ্মীকোল গ্রামের বসত বাড়ি ছেড়ে তার স্ত্রী-সন্তান নিয়ে রাজবাড়ীর আলীপুর ইউনিয়নের ইন্দ্রনারায়নপুর গ্রামে ভাড়া বাড়িতে প্রায় ১১ মাস যাবৎ বসবাস করে আসছে। বসত বাড়ি করার জন্য ১০৭ ধারার মামলার বাদীর বাড়ির পাশে ৮ শতাংশ জমি ক্রয় করে সাংবাদিক রিয়াজুল করিম। মূলত ওই জমি ক্রয়কে কেন্দ্র করেই মামলার বাদীর পরিবারের লোকজনের চোখে রিয়াজুল করিম শত্রুতে পরিনত হয়। জমি ক্রয়ের পর রিয়াজুল করিম তার ক্রয়কৃত জমি হতে বিবাদীদের বেড়া সরিয়ে নেওয়ার ও সিমানার গাছ কেটে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে সেইসাথে জমি মাপ-জোখ করে নেওয়ার কথাও বলে। এতেই মামলার বাদী আব্দুল মুন্নাফের পরিবারের লোকজন ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে। এর ৩/৪ দিন পরে গত ১৪/০৩/২০২২ ইং তারিখে মামলার বাদীর পরিবারের লোক সবাই মিলে জোটবদ্ধ হয়ে লাঠি-সোঠাসহ অকথ্য ভাষায় গালাগাল করতে করতে সাংবাদীক রিয়াজুল করিমের বসত (ভাড়া) বাড়ির সামনে যেয়ে তাকে মারপিটের করার জন্য ঘর হতে বেড় হতে বলে ও ঔদ্বত্যপূর্ন আচরন করে। (যাহা মোবাইল ফোনে রেকর্ড ধারন করা রয়েছে)। এ ঘটনায়, ওই দিনই সাংবাদিক রিয়াজুল করিম বাদী হয়ে- মোঃ সালাম সেখ, মামলার বাদী মোঃ মুন্নাফ সেখ ও মোঃ আনিছ সেখের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত ৪/৫ জনদের বিরুদ্ধে রাজবাড়ী সদর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করে। ওই অভিযোগের প্রেক্ষিতে গত ২৩/০৩/২০২২ ইং তারিখে (বাদী-বিবাদীর জমি মাপ-জোখের পরমূহুর্তে) রাজবাড়ী থানার সাব ইন্সপেক্টর মোঃ কারুজ্জামান সিকদার ১০৭ ধারার মামলার বাদী মোঃ মুন্নাফ সেখ গংদের বলেন- সামাজিকভাবে বসে অভিযোগকারী রিয়াজুল করিমের সাথে আগামী ৩ দিনের মধ্যে মিমাংশা করে নিবেন, অন্যথায় আইনগত ব্যাবস্থা নিতে বাধ্য হব। (এসব কথা-বার্তাও মোবাইলে ধারন করা আছে)। এরপর মিমাংশ তো দুরের কথা আসামীদের একজন (মুন্নাফ) বাদী হয়ে উল্টো অভিযোগকারী রিয়াজুল করিম সহ গ্রামের আরও ৩ জনের বিরুদ্ধে ১০৭ ধারায় মামলা করেছে আদালতে। সেইসাথে রিয়াজুল করিমের ক্রয়কৃত জমির পশ্চিম পাশের সিমানা অতিক্রম করে ২ ফুট জায়গা দখল করে বেড়া দিয়েছে। মূলত নিজেদের অপরাধ ঢাকতে ও অন্যায়কে টিকিয়ে রাখতে ১০৭ ধারায় মমমলা দিয়ে আইনকে ঢাল স্বরুপ ব্যাবহার করেছে মুন্নাফ গং। হয়রানির উদ্দেশ্যে এই মিথ্যা মামলা করা হয়েছে বলে জানাযায়।

ঘটনা তদন্তে আরও জানাযায়, সাংবাদিক রিয়াজুল করিমের ওই জমি ক্রয়ে সহযোগীতা করে মো. দবির মন্ডল ও মো. মজিবর শিকদার এবং জমি মাপজোখের সময় ন্যায় কথা বলায় সাবেক ইউপি সদস্য কামাল শিকদারের উপরে ক্ষিপ্ত হয় মুন্নাফের পরিবারের লোকজন। সে কারনে সাংবাদিক সহ উক্ত ৩ জনের বিরুদ্ধে উদ্দেশ্যপ্রনিতভাবে ষড়যন্ত্রমূলক-মিথ্যা মামলা দায়ের করে।

এ ঘটনায়, সাংবাদিক রিয়াজুল করিম বাধ্য হয়ে তার ও তাহার পরিবারে জীবন ও সম্পদ রক্ষার্থে- গত ১৪/০৩/২০২২ ইং তারিখে ঘটনা উল্লেখসহ সালাম, মুন্নাফ ও আনিচ গংদের বিরুদ্ধে গত ২২/৪/২০২২ তারিখে রাজবাড়ী থানায় একটি জিডি এন্ট্রি করে। রাজবাড়ী থানার জিডি নং- ১০৯১।

সর্বশেষ পোষ্ট

এই ধরনের আরো সংবাদ

2 COMMENTS

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here