Thursday, April 18, 2024

ইফাতারে স্যালাইন পানে উপকার নাকি ক্ষতি?

স্বাস্থ্য ডেস্কঃ  পবিত্র মাহে রমজানে রোজা পালনের সময় দীর্ঘ সময় খাবার ও পানাহার থেকে বিরত থাকেন রোজাদাররা। এতে অনেকেরই পানিশূন্যতা দেখা দিতে পারে। এ ক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি ঝুঁকিতে থাকে বয়স্ক, শিশু, ডায়াবেটিস রোগী এবং কিডনি সমস্যায় ভুগছেন এমন ব্যক্তিরা। এ কারণে অনেকে ইফতারে স্যালাইন পান করেন। কিন্তু দীর্ঘ সময় খাবার ও পানাহার থেকে বিরত থাকার পর স্যালাইন পান করা কি ঠিক?

রমজানে পানিশূন্যতা হলে শরীরে কিছু উপসর্গ দেখা যায় যেমন: শরীর দুর্বল হয়ে পড়া, মুখ ও ত্বক অতিরিক্ত শুকিয়ে যাওয়া, মাথা ঘোরানো, মাথাব্যথা, কোষ্ঠকাঠিন্য, জিব শুকিয়ে যাওয়া ইত্যাদি।

এসব লক্ষণ দেখা দিলে অনেকে ইফতারে পানির পরিবর্তে স্যালাইন পান করেন। তবে এটি মোটেও ঠিক নয়। কেননা, খালি পেটে স্যালাইন খেলে বমি বমি ভাব, এমনকি বমিও হতে পারে। এ ক্ষেত্রে ইফতারের পরে অর্থাৎ ভরাপেটে এক গ্লাস স্যালাইন খেতে পারেন।

এ ছাড়া যাদের উচ্চ রক্তচাপ, ডায়াবেটিসসহ বিভিন্ন জটিল রোগের সমস্যা রয়েছে তারা ভুলেও স্যালাইন খাবেন না। কারণ, এতে বড় ধরনের বিপদ হতে পারে।

স্যালাইন পান করার ফলে রক্তে যে লবণের ক্রিয়া হয়, তা সবার জন্য উপকারী নয়। যদি কারো উচ্চ রক্তচাপ থাকে এবং জরুরি প্রয়োজন ছাড়াই স্যালাইন পান করেন তাতে সমস্যাও বেড়ে যেতে পারে।

স্যালাইনের উপাদানে সোডিয়াম ক্লোরাইড উপস্থিত থাকার কারণে রক্তে ইলেকটোলাইট ভারসাম্যহীনতা সৃষ্টি করতে পারে, যার কারণে শ্বাসকষ্ট হতে পারে না। তাই অকারণে এবং চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া স্যালাইন পান করা স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর।’

 

সর্বশেষ পোষ্ট

এই ধরনের আরো সংবাদ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here