Sunday, May 26, 2024

গোয়ালন্দে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে চাচা ও ভাতিজার মৃত্যু

মোজাম্মেল হক লালটু, গোয়ালন্দ: রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া নুরুল ইসলাম মন্ডল পাড়ায় বিদ্যুৎস্পৃষ্টে চাচাও ভাতিজার মৃত্যু হয়েছে।

নিহতরা হলো, নুরুল ইসলাম চেয়ারম্যান পাড়ার মাসেম মোল্লার ছেলে নুরু মোল্লা (৭৫) দৌলতদিয়া বাজারের ঔষধ ব্যবসায়ী মো. আনোয়ার ডাক্তারের এক মাত্র ছেলে শামীম(৩৫) বুধবার (১৮ অক্টোবর) দুপুরে নুরুল ইসলাম চেয়ারম্যান পাড়ার এই ঘটনাটি ঘটে।

স্থানীয়রা জানান, কয়েক দিন ধরে বালির চাতালের ভেকুতে লেগে কারেন্টের তার ছিড়ে পানিতে পরে থাকে। এমতা অবস্থায় নুরু মোল্লা কাঠি নিয়ে পানির মধ্যে দিয়ে তার বাড়িতে যাবার সময়। বিদ্যুতের শক খেয়ে পানিতে লুটিয়ে পড়ে। সে সময় এলাকার লোকে ডাক চিৎকারে তার ভাতিজা এগিয়ে আসে এসে দেখে তার চাচা পানির মধ্যে বিদ্যুতের তারের সাথে পেচি আছে । তখন শামীম এসে প্লাস দিয়ে তার টেনে সরাতে গেলে বিদ্যুতের তার হাতে লেগে যায়। সে সময় স্থানীয় লোকজন বাঁশ দিয়ে তার ছাড়িয়ে তাকে উদ্ধার করে গোয়ালন্দ হাসপাতাল নিয়ে গেলে কর্মরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে।

প্রতিবেশী রুবেল ও সাদ্দাম বলেন, আমরা বার বার মানা করেছি শামীমকে প্লাস দিয়ে বিদ্যুতের তার ধরো না। বড় একটি বাঁশ দিয়ে সরাও। কিন্তু সে আমাদের কোন কথাই মানলো না বিদ্যুতের তার গুছাইতে গিয়ে হঠাৎ তার হাতের উপরে এসে লেগে যায়। লাগার সাথে সাথে এসে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। তার শরীর মেসেজ করেও কোন কাজ হয়নি। তখন আমরা তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাই কর্মতর ডাক্তার তাকে দেখে মৃত ঘোষণা করেন।

পল্লী বিদ্যুতের প্রশাসনিক কর্মকর্তা ইকরামুল হোসেন বলেন, ‘ ৫- ৭ দিন ধরে বিদ্যুতের তার ছিরে পড়ে আছে কেউ কোন ব্যক্তি আমাকে ফোন দেয়নি। ঝড় বৃষ্টিতে ছিড়তে পারে আবার বালুর চতালের ভেকুতে লেগে ছিরে যেতে পারে।’

 

সর্বশেষ পোষ্ট

এই ধরনের আরো সংবাদ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here