Monday, February 6, 2023

বহ্নিমান শোকের ১৫ আগস্ট

নেহাল আহমেদ,রাজবাড়ীঃ ১৫ আগস্ট। আজ বাংলা ও বাঙালির ইতিহাসের সবচেয়ে কলঙ্কিত দিন। পাকিস্তানি শাসকগোষ্ঠীর শোষন নিপীড়নের বিরুদ্ধে দীর্ঘ ২৩ বছরের রাজনৈতিক আন্দোলনের ধারাবাহিকতায় ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধে বিজয়ের মধ্য দিয়ে বিশ্বের বুকে গৌরবদীপ্ত জাতি হিসেবে বাঙালি প্রতিভাত হয়। অথচ স্বাধীনতা লাভের মাত্র সাড়ে তিন বছরের মাথায় সেই জাতিই তার আপন মুক্তিদাতাকে, স্বাধীনতার মহান স্থপতিকে নৃশংসভাবে সপরিবারে হত্যার মধ্য বিশ্বের বুকে একটি কলঙ্কিত জাতি হিসেবে নাম লেখায়। বাংলা মায়ের কতিপয় অকৃতজ্ঞ কুসন্তানের বর্বরতায় বিশ্ববাসী স্থম্ভিত হয়, বঙ্গবন্ধুহীন বাংলার সাধারণ মানুষ হয়ে যায় দিশেহারা। ’৭৫-এর ১৫ আগস্ট ( পিতার প্রতি বিশ্ববাসী শোক জানান।

তোমরা আমারই দেওয়া ট্যাঙ্ক দিয়ে আমার বন্ধু মুজিবকে হত্যা করেছ! আমি নিজেই নিজেকে অভিশাপ দিচ্ছি”
-মিশরের প্রেসিডেন্ট আনোয়ার সাদাত।
“শেখ মুজিব নিহত হলেন তার নিজেরই সেনাবাহিনীর হাতে অথচ তাকে হত্যা করতে পাকিস্তানিরা সংকোচবোধ করেছে”
– বিবিসি-১৫ আগস্ট ১৯৭৫।
“বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হচ্ছেন সমাজতন্ত্র প্রতিষ্ঠার সংগ্রামের প্রথম শহীদ। তাই তিনি অমর”
– ইরাকি প্রেসিডেন্ট সাদ্দাম হোসেন।
“শেখ মুজিবের মৃত্যুতে বিশ্বের শোষিত মানুষ হারাল তাদের একজন মহান নেতাকে, আমি হারালাম একজন অকৃত্রিম বিশাল হৃদয়ের বন্ধুকে”
—ফিদেল কাস্ট্রো।
“আপোষহীন সংগ্রামী নেতৃত্ব আর কুসুম কোমল হৃদয় ছিল মুজিব চরিত্রের বৈশিষ্ট্য”
—ইয়াসির আরাফাত।
” মুজিব হত্যার পর বাঙালিদের আর বিশ্বাস করা যায় না, যারা মুজিবকে হত্যা করেছে তারা যেকোনও জঘন্য কাজ করতে পারে”
-নোবেল বিজয়ী উইলিবান্ট।
“শেখ মুজিবুর রহমান ভিয়েতনামী জনগণকে অনুপ্রাণিত করেছিলেন”
— কেনেথা কাউণ্ডা।
” শেখ মুজিব নিহত হওয়ার খবরে আমি মর্মাহত। তিনি একজন মহান নেতা ছিলেন। তার অনন্য সাধারণ সাহসিকতা এশিয়া ও আফ্রিকার জনগণের জন্য প্রেরণাদায়ক ছিল”
– ইন্দিরা গান্ধী।
” বঙ্গবন্ধুর হত্যাকাণ্ডে বাংলাদেশই শুধু এতিম হয়নি, বিশ্ববাসী হারিয়েছে একজন মহান সন্তানকে ”
– জেমসলামন্ড, ব্রিটিশ এমপি।
” শেখ মুজিব ছিলেন এক বিস্ময়কর ব্যক্তিত্ব”
-ব্রিটিশ দৈনিক দ্য গার্ডিয়ান।
” মুজিব না থাকলে বাংলাদেশ কখনই জন্ম নিত না”
– ফিন্যান্সিয়াল টাইমস।
‘যিশু মারা গেছেন। এখন লাখ লাখ লোক ক্রস ধারণ করে তাকে স্মরণ করছে। একদিন মুজিবই হবেন যিশুর মতো”- আকাশ বানী, কলকাতা।, শোকের এই দদিনে রাজবাড়ীতে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, সামাজিক,রাজনৌতিক রাজবাড়ী জেলা প্রশাশকের কার্যালয়ে মুজিব চত্বরে, ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান।এই দিনটি উপলক্ষে, জেলা পুলিশ, জেলা প্রশাসন,পুনাক শিল্পকলা জেলা আওয়ামীলীগ বিভিন্ন কর্মসুচী পালন করছে।

সর্বশেষ পোষ্ট

এই ধরনের আরো সংবাদ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here