Wednesday, February 21, 2024

বালিয়াকান্দিতে মহান মে দিবস পালন

মোঃ আমিরুল হক : রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দিতে যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান মে দিবস পালিত হয়েছে।

সোমবার (১ মে) সকালে জেলার বালিয়াকান্দি উপজেলার বালিয়াকান্দি সরকারি কলেজ মাঠে উপজেলা শ্রমিক লীগের আয়োজনে এই দিবসটি পালন উপলক্ষ্যে আন্তর্জাতিক শ্রমিক দিবসের র‍্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি মোঃ ইদ্রিস আলী ফকিরের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আবু তারেক বাবলুর সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হান্নান মোল্লা, সিনিয়র সহ-সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল কালাম আজাদ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি আব্দুস সাত্তার খান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এহসানুল হাকিম সাধন, মোঃ হারুন অর রশিদ হারুন, বাবু নারোদ বাছার, মোঃ সোলেমান আলী মোল্লা দুলুসহ সহযোগী সংগঠনের নের্তৃবৃন্দ।
এসময় বক্তাগণ বলেন, প্রতি বছর ১ মে আন্তর্জাতিক শ্রম দিবস বা আন্তর্জাতিক শ্রমিক দিবস হিসাবে পালন করা হয়। আন্তর্জাতিক শ্রমিক দিবস (মহান মে দিবস) হিসাবেও চিহ্নিত এই দিনটির ইতিহাস সম্পর্কে অনেকেরই জানা নেই।
১৮৮৬ সাল থেকে আমেরিকায় আন্তর্জাতিক শ্রমিক দিবস পালন করা হয়। এর সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছে বিরাট ইতিহাস। সেটিও কম আকর্ষণীয় নয়।

১৮৮৬ সালে আমেরিকার শিকাগো শহরের হে মার্কেটে নিহত শহিদদের আত্মত্যাগকে মনে রেখে এই দিনটি পালিত হয়। সেদিন দৈনিক ৮ ঘণ্টার কাজের দাবিতে শ্রমিকরা হে মার্কেটে জমায়েত করেছিলেন। তাঁদের ঘিরে থাকা পুলিশের প্রতি কেউ একজন বোমা ছোঁড়েন। তার পরে পুলিশ নির্বিচারে শ্রমিকদের উপর গুলি চালাতে শুরু করে। ফলে প্রায় ১০-১২ জন শ্রমিক ও পুলিশ নিহত হন। ১৮৮৯ সালে ফরাসি বিপ্লবের শতবার্ষিকীতে প্যারিসে দ্বিতীয় আন্তর্জাতিকের প্রথম কংগ্রেস অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে ১৮৯০ সাল থেকে শিকাগো প্রতিবাদের বার্ষিকী আন্তর্জাতিকভাবে বিভিন্ন দেশে পালনের প্রস্তাব করেন রেমন্ড লাভিনে। এই হল আন্তর্জাতিক শ্রমিক দিবসের সূচনা। ১৮৯১ সালে প্যারিসেই আন্তর্জাতিকের দ্বিতীয় কংগ্রেসে এই প্রস্তাব আনুষ্ঠানিকভাবে গৃহীত হয়। স্বীকৃতি পায় মে দিবস বা আন্তর্জাতিক শ্রমিক দিবস।

১৯০৪ সালে আমস্টারডাম শহরে অনুষ্ঠিত সমাজতন্ত্রীদের আন্তর্জাতিক সম্মেলনে এই উপলক্ষ্যে একটি প্রস্তাব গৃহীত হয়। দৈনিক ৮ ঘণ্টা কাজের দাবি আদায়ের জন্য এবং শান্তি প্রতিষ্ঠার জন্য বিশ্বজুড়ে ১ মে তারিখে মিছিল ও শোভাযাত্রা আয়োজন করতে সকল গণতান্ত্রিক দল এবং ট্রেড ইউনিয়নের প্রতি আহ্বান জানানো হয়। সেই সম্মেলনে সব শ্রমিক সংগঠন মে মাসের ১ তারিখে ‘বাধ্যতামূলকভাবে কাজ না-করার’ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে। পূর্বতন সোভিয়েত ইউনিয়ন, চীন, কিউবা-সহ বিশ্বের অনেক দেশেই মে দিবস একটি তাৎপর্যপূর্ণ দিন। সে সব দেশে এই দিবসটিকে ঘিরে সামরিক কুচকাওয়াজের আয়োজন করা হয়।

এবিষয়ে বিশ্বের অনেক দেশেই আন্তর্জাতিক শ্রমিক দিবসের লাল পতাকা তোলা হয়। ৮০-র বেশি দেশে এই দিনটি পালিত হয়। বিশ্বের রাজনৈতিক ইতিহাসে এটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি দিন হিসাবে চিহ্নিত। অন্যান্য বছরের মতোই এ বছরও বাকি পৃথিবীর পাশাপাশি বাংলাদেশ দেশেওএই দিনটি পালিত হয়েছে। এর ধারাবাহিকতায় বালিয়াকান্দিতে অনুষ্ঠিত হলো এই দিবসটি।

সর্বশেষ পোষ্ট

এই ধরনের আরো সংবাদ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here