Thursday, April 18, 2024

বিদ্যানন্দের ১০ টাকায় রাজসিক বাজার যেখানে ১ টাকায় মিলবে সব পণ্য

বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে রাজবাড়ীতে রমজান উপলক্ষে রাজসিক বাজারের আয়োজন করা হয়েছে ।
এ বাজারে নাম মাত্র মূল্য ১০ টাকায় চাল , ডাল, তেল , লবন, মাছ মুরগী সহ নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য সহ মোট  বিক্রি করা হয়েছে । প্রতিটি পণ্যের দাম মাত্র ১ টাকা । রমজানকে সামনে রেখে সুবিধা বঞ্চিত ,দুঃস্থ ও অসহায় দুই শতাধিক মানুষ প্রতীকী মূল্যে বাজার করতে পেরেছেন এ বাজারে ।
২৯শে ফেব্রুয়ারি ( বৃহস্পতিবার) সকালে রাজবাড়ী সদর উপজেলা হলরুমে দিনব্যাপী ১০ টাকার এ সুপার শপে পণ্য কেনার কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন রাজবাড়ী জেলা প্রশাসক আবু কায়সার খান। বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের বোর্ড মেম্বার জামাল উদ্দিনের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সদর উপজেলা চেয়ারম্যান (ভারপ্রাপ্ত) রাকিবুল হাসান পিয়াল, সদর উপজেলার সহকারি কমিশনার (ভূমি) হুমায়রা সুলতানা, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আলেয়া বেগম ।
ভোজ্য তেল চাল ডাল ছোলা ডিম মাছ মুরগী নুডুলস সহ মোট ১৮টি সমাহার ছিলো এ সুপার শপে । ১০টাকার টোকেন নিয়ে দুস্থ ও অসহায় মানুষ চাহিদামত যেকোন ১০টি পণ্য বাছাই করে নিতে পেরেছেন।
বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের তদারকিতে ১০ টাকায় রাজসিক বাজার নামক রোজার বাজারে দেখাগেছে অস্বচ্ছল নারী পুরুষের কেনাকাটা ।
বাজারে ১লিটার তেল যখন ১৮০ টাকা , ব্রয়লারের কেজি ২৫০ টাকা  সেখানে রাজসিক বাজারে এ পণ্য মিলেছে মাত্র ১ টাকায়। ১ টাকায় মিলেছে ১ ডজন ডিম নুডুলস ,বই খাতা কলম,আর কাপড় টি শার্ট ।
এ পণ্যগুলো ১ টাকায় কিনতে পেরে বাজার করতে আসা আলেয়া বেগম বলেন, বাজারে পণ্যের যে দাম , অনেকদিন মাংস দিয়ে ভাত খেতে পারিনা । আজকে খাবো ১০  টাকায় অনেক বাজার করেছি ।
নুরু মোল্লা বলেন, ১০টাকা হাতে নিয়ে বাজারে কি যাওয়া যায়। আজকে ১ টাকায় মুরগী কিনছি । চালডাল সব কিনছি রোজার সামনে আমার অনেক উপকার হইছে । প্রায় ১৫শত টাকার বেশি বাজার করলাম মাত্র ১০ টাকায় ।
১০ টাকার এ সুপার শপে পণ্য কেনার কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন রাজবাড়ী জেলা প্রশাসক আবু কায়সার খান।

 

রাজসিক বাজারের উদ্বোধক ও প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক আবু কায়সার খান বলেন, রমজান মাস উপলক্ষে বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের রাজসিক বাজার একটি সেবা মূলক কাজ । তারা নাম মাত্র মূল্যে ১০ টাকায় রাজসিক বাজারের আয়োজন করেছে সেটা খুবই প্রশংসার দাবীদার । আমরা সাধারণত দান অনুদান যাই করে থাকি তা নিজেদের পছন্দ মতো । কিন্তু বিদ্যানন্দ সেটা করে না। বিদ্যানন্দ ভিন্ন ভাবে এটা করে থাকে। একটি সুপার শপের মাধ্যমে নামমাত্র মূল্যে ক্রেতারা তাদের পছন্দমত পণ্য কিনে নিতে পারে । আমি এ ধরনের সেবামূলক কাজের জন্য বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনকে সাধুবাদ জানাই ।’

সর্বশেষ পোষ্ট

এই ধরনের আরো সংবাদ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here