Sunday, May 26, 2024

রাজবাড়ীতে ক্লুলেস হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদ্ঘাটন ও আসামী গ্রেফতার : পাওনা টাকা নিয়ে হত্যার পরিকল্পনা

রাজবাড়ী জার্নাল ডেস্ক: রাজবাড়ীর কালুখালিতে গত ৫ই অক্টোবর অজ্ঞাত নারীর অর্ধগলিত লাশ উদ্ধারের ১২দিন পর ক্লুলেস হত্যা কান্ডের রহস্য উদঘাটন ও আসামীকে গ্রেফতার করেছে কালুখালি থানা পুলিশ ।
১৮ই অক্টবর ( বুধবার) রাজবাড়ী পুলিশ সুপারের সম্মেলন কক্ষে এক প্রেস ব্রিফিং এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ( অর্থ ও প্রশাসন) মোঃ রেজাউল করীম ।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম এন্ড অপস) মুকিত সরকার , সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার (পাংশা সার্কেল) সুমন কুমার সাহা, কালুখালি থানার ওসি প্রানবন্ধু চন্দ্র বিশ্বাস ও স্থানীয় প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক্স মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ ।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ রেজাউল করীম বলেন, গত ৫ই অক্টোবর সন্ধ্যা পৌনে ৭টার সময় জেলার কালুখালি থানাধীন কাওয়োখোলা এলাকায় ধান খেতের মধ্যে একজন মহিলার অর্ধগলিত মৃত লাশ পাওয়া যায়।

মৃতদেহের পরিচয় শনাক্তের জন্য কোন প্রকার তথ্য ছিলোনা । স্থানীয়ভাবে সংবাদ মাধ্যম ও সোশ্যাল মডিয়া, মাইকিং করেও কোন প্রকার তথ্য পাওয়া যায় না । পরে কালুখালি থানা পুলিশ বাদী হয়ে ৭ই অক্টবর একটি হত্যা মামলা দায়ের করে ও নিবিড় তদন্ত শুরু করে পুলিশ । পরে নিবিড় তদন্তে হত্যা মামলার আসামী জেলার পাংশা উপজেলার জাগিরকয়া গ্রামের মৃত তাছের আলী মন্ডলের ছেলে মোঃ আঃ রহিম মন্ডল (৬৫) কে ১৭ই অক্টবর কালুখালি থানাধীন বড়ইচারা এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতার মোঃ আঃ রহিম মন্ডল পুলিশের কাছে স্বীকার করে যে অর্ধগলিত মৃত দেহটি ফরিদপুর জেলার ভাঙ্গা থানার তুজারপুর এলাকার সেকেন ফকিরের ছেলে ফাহিমা (৪১) ।
আনুমানিক ৩ বছর আগে আঃ রহিম মন্ডল ও ফাহিমা কাতারে ছিলো । কাতারে ত্থাকা অবস্থায় ফাহিমা আঃ রহিম মন্ডলের কাছ থেকে বাংলাদেশি টাকায় ২লক্ষ ১০ হাজার টাকা ধার নেয়। দেশে আসার পর তাদের মধ্যে যোগাযোগ ছিলো । আঃ রহিম পাওনা টাকার জন্য ফাহিমা কে বলে পরে ফাহিমা টাকা দিতে তাল-বাহানা শুরু করে ,পরে আঃ রহিম ক্ষিপ্ত হয়ে ফাহিমাকে হত্যার পরিকল্পনা করে। পরিকল্পনা অনুযায়ী আঃ রহিম মন্ডল বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ৩০শে সেপ্টেম্বর রাত সারে ৯টার সময় ফাহিমাকে পাংশায় নিয়ে আসে । পরে পাংশা থানাধীন সোবাহান মন্ডলের ধানক্ষেতে ফাহিমাকে গলাউ ওড়না পেচিয়ে শ্বাস রোধ করে খুন করে এবং চতুরতার সাথে লাশ গুম করার জন্য তার আইডি কার্ড , মোবাইল ,ছবি ও ব্যানিটি ব্যাগ বিভিন্ন স্থানে ফেলে রাখে ,কালুখালি থানার বিভিন্ন এলাকা থেকে গ্রেফতার মোঃ আঃ রহিম মন্ডলের দেওয়া তথ্যমতে আলামত উদ্ধার করা হয় ।’

 

সর্বশেষ পোষ্ট

এই ধরনের আরো সংবাদ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here