Saturday, July 13, 2024

রাজবাড়ীতে নির্মান করা হবে একটি নতুন ক্যারেজ ও ওয়াগন মেরামত কারখানা

রাজবাড়ী প্রতিনিধি: রেলের জেলা হিসেবে পরিচিত রাজবাড়ীতে নির্মান করা হবে একটি নতুন ক্যারেজ ও ওয়াগন মেরামত কারখানা। নতুন ক্যারেজ ও ওয়াগন মেরামত কারখানা নির্মানের জন্য বিশদ নক্সা ও দরপত্র দলিল তৈরিসহ পরিবেশগত ও সামাজিক প্রভাব মূল্যায়ন , ভূমি অধিগ্রহণ এবং পুনর্বাসন কর্ম পরিকল্পনা বিষয়ে ১০ সেপ্টেম্বর (রোববার) দুপুর বারোটায় জেলার প্রশাসকের কার্যালয়ে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি , ভূমির মালিক ও সরকারের বিভিন্ন দফতরের কর্মকর্তাদের সাথে মতবনিমিয় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

রাজবাড়ী জেলা প্রশাসক আবু কায়সার খান এর সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন রাজবাড়ী-১ আসনের এমপি আলহাজ্ব কাজী কেরামত আলী, রেইলওয়ে প্রজেক্ট ডাইরেক্টর ড.কুদরত ই খুদা , রাজবাড়ী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শফিকুল মোর্শেদ আরুজ, রাজবাড়ী পুলিশ সুপার জি.এম. আবুল কালাম আজাদ, পৌর মেয়র আলমগীর শেখ তিতু ,রাজবাড়ী জেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি হেদায়েত আলী সোহরাব, সাবেক মেয়র মোহাম্মদ আলী চৌধুরী প্রমুখ ।

ডেপুটি টিম লিডার আব্দুল হালিম মিয়া, প্রজেক্ট কো অর্ডিনেটর আব্দুল লতিফ এবং প্রজেক্টের পরামর্শ দলের সদস্য মোঃ শাজাহান আলম প্রজেক্টরের মাধ্যমে ক্যারেজ ও ওয়াগন মেরামত কারখানার প্রকল্পের উদ্দেশ্য ও পটভুমি,প্রকল্পের সংক্ষিপ্ত বিবরণ, প্রকল্প এলাকার চিত্র, পরিবেশগত প্রভাব মূল্যায়ন, পরিবেশগত বেসলাইন-বায়মান পর্যবেক্ষন ,পরিবেশগত বেসলাইন জরিপ-শব্দের মাত্রা পর্যবেক্ষণ ,কম্পন পর্যবেক্ষণ সহ বিভিন্ন দিক প্রেজেক্টরের মাধ্যমে তুলে ধরা হয়। সিস্ট্রা এবং ডিডিসি এ প্রকল্পের বাস্তবায়ন করবে ।

এ বিষয়ে রাজবাড়ী-১ আসনের এমপি আলহাজ্ব কাজী বলেন, রেলওয়ের বড় একটি ক্যারেজ রাজবাড়ীতে নির্মিত হবে এটা সরকারের একটি উন্নয়নমূলক কাজের অংশ। আমরা এ উন্নয়ন্মূলক কাজকে সাধুবাদ জানাই। এ উন্নয়ন মুলক কাজ করতে গিয়ে সাধারণ মানুষের যেন কোন ধরনের ক্ষতি বা ভোগান্তীর শিকার হতে না হয় সেদিকে খেয়াল রাখার অনুরোধ জানান। তিনি বলেন রেলওয়ের অনেকটা জায়গা জুড়ে সুইপার কলোনীর বসবাস, তারা দীর্ঘদিন সেখানে বসবাস করছে ,তাছাড়া এতিমখানা, শহরের ইয়াসিন উচ্চ বিদ্যালয় সহ গুরুত্বপুর্ন স্থাপনার যায়গা বাদ রেখে ক্যারেজ নির্মানের দাবীর রাখেন।

এ সময় ডেপুটি টিম লিডার আব্দুল হামিদ সকলের উন্মুক্ত প্রশ্নের জবাব দেন। বিএস মৌজার যে সকল ব্যাক্তিগত জমি এক্যুয়ার করা হবে সেগুলো সেগুলো তিনগুন দামে সরকার উন্নয়নের জন্য ক্রয় করবে বলে জানান। তিনি আরোও জানান, রাজবাড়ী বাসীর জন্য এটা একটা উন্নয়নের মাইলফলক হিসেবে কাজ করবে। এখানে ক্যারেজের নিজস্ব হাঁসপাতাল থাকবে, মসজিদ ,মন্দির যদি প্রজেক্টের জায়গায় পরে যায় সেগুলো স্থানান্তর করে সরকারীভাবেই নির্মাণ করেদেওয়া হবে। তাছাড়া লোকশেড এলাকায় একটা বদ্ধভূমি রয়েছে সেটিকে আরো উন্নয়ন করা হবে এবং স্থানীয়দের চলাচলের জন্য ৩০ফিট চওড়া রাস্তা নির্মাণ করা হবে। আর যারা রেলওয়ের জমি লিজ নিয়েছেন সে জমিগুলো ফিরিয়ে নেওয়া হবে। আজকে আপনাদের সাথে মতবিনিময় করার জন্য আমরা আজকে বসেছি আপনাদের মতামত নিতে আমরা আরেকবার আপনাদের সাথে এ বিষয়ে বসে কথা বলবো। ‘

প্রজেক্ট ডাইরেক্টর ড.কুদরত ই খুদা বলেন, রাজবাড়ী বাসীর জন্য এটি একটি উন্নয়নের মাইলফলক। রেলওয়ের এ ক্যারেজ ও ওয়াগন মেরামত কারখানা রাজবাড়ী বাসীর জন্য খুবই একটি উন্নয়নমূলক কাজ এটি । মাননীয় প্রধানমন্ত্রী রেলওয়ের জন্য অনেক উন্নয়নমূলক কাজ করে যাচ্ছেন। আমরা এখানে রেলওয়ের যায়গায়ই কাজ করবো আর যতটুকু না হলেই না সে যায়গাটুকু আমরা একুয়ার করবো। তাই এই উন্নয়নমূলক কাজে আপনাদের সহযোগীতা কামনা করছি। ”

আজকে রেলওয়ের পাশে থাকা বাসীন্দা ,জমির মালিক ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সাথে মতবিনিময় হয়েছে এর পরও আরেকবার বসে বিষয়টি সম্পন্ন করা হবে বলে জানানো হয় ।তবে কবেনাগাদ এ কাজ শুরু হবে সে বিষয়ে কোন আলোচনা হয় নি ।

সর্বশেষ পোষ্ট

এই ধরনের আরো সংবাদ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here