Thursday, April 18, 2024

টানা বৃষ্টিতে দুর্ভোগ নগরবাসীর

ঢাকা : টানা বৃষ্টিতে রাজধানীর অলি-গলিতে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। এতে দুর্ভোগে পড়েছেন নগরবাসী।
আজ শনিবার (১ জুলাই) সকাল থেকে কখনও মুষলধারে আবার কখনও গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি ঝরছে। সকাল পেরিয়ে সন্ধ্যা নামলেও নগরবাসীর পিছু ছাড়ছে না বৃষ্টি।

এদিকে শনিবার বেলা ৩ টার দিকে প্রায় এক ঘণ্টা ধরে রাজধানীতে মুষলধারে বৃষ্টি হয়েছে। এতে ঢাকার বিভিন্ন অঞ্চলের অলি-গলিতে হাঁটু পানি জমে গেছে। এই বেরসিক বৃষ্টি বাগড়া ফেলেছে ঈদ আনন্দে। কারণ বাসার সামনে পানি জমে থাকায় অনেকের পক্ষে ঘর থেকে বের হওয়া কষ্টকর হয়ে পড়েছে। ফলে ঈদের ছুটিতে যারা পরিবার নিয়ে ঘুরতে বের হওয়ার পরিকল্পনা করেছিলেন, তাদের অনেককেই সেই পরিকল্প বাতিল করতে হয়েছে।

ঈদের তৃতীয় দিন শনিবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত ঢাকার আকাশ ছিল বেশ পরিষ্কার। দিনের শুরুটা আলো ঝলমলে হলেও, বিকেল ৩টার দিকে হঠাৎ মুষলধারে বৃষ্টি শুরু হয়। প্রায় এক ঘণ্টা ধরে চলে মুষলধারে বৃষ্টি। বিকেল ৪টার দিকে বৃষ্টির তীব্রতা কিছুটা কমলেও, সন্ধ্যা পর্যন্ত আকাশ থেকে বৃষ্টির পানি ঝরা থামেনি।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, টানা বৃষ্টিতে রাজধানীর সেগুনবাগিচা, কাকরাইল, খিলগাঁও, শান্তিনগর, নয়াপল্টন, রাজারবাগ, দক্ষিণখান, বংশাল, নাজিরাবাজার, মুকিমবাজার, গোপীবাগ, উত্তরা, রামপুরা, নাখালপাড়া, হাতিরঝিল, মধুবাগ, আদাবর, সাতরাস্তা, মগবাজার, মিরপুর রোড, পান্থপথ, গ্রিনরোড, কমলাপুর, পুরান ঢাকার বংশাল, নাজিমুদ্দিন রোড, ধানমন্ডি, মিরপুর ১৩, রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় দেখা দিয়েছে জলাবদ্ধতা।

আবহাওয়ার অফিসের আবহাওয়াবিদ মনোয়ার হোসেন বাসসকে জানান, শনিবার সকাল ৬ টা থেকে সন্ধ্যায় ৬ টা পর্যন্ত ৮০ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে।

জলাবদ্ধতা নিরসের বিষয়ে দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের পক্ষ্য থেকে জানানো হয়, আমরা জলাবদ্ধতা নিরসনের জন্য অনেক আগে থেকেই কাজ শুরু করেছি। ইতোমধ্য নগরবাসী অনেক সুফল ভোগ করছেন। গত ৩ বছরে ১৩৬ টি স্থানের ঝলাবদ্ধাতা নিরসনে কাজ করা হয়েছে। আরও অনেক নতুন নতুন প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। আজকের বৃষ্টির জন্য যে জলবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছিল, ইতোমধ্য অনেক স্থানে পানি নেমে গেছে। রাত ৯ টার মধ্য বাকি স্থানের পানিও নেমে যাবে।
এদিকে শনিবার সন্ধ্যা ৬ টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, রংপুর, রাজশাহী, ঢাকা, ময়মনসিংহ, খুলনা ও সিলেট বিভাগের অধিকাংশ জায়গায় এবং বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগের অনেক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। একই সঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারী থেকে অতিভারী বর্ষণ হতে পারে।

 

সূত্রঃ ১ জুলাই, ২০২৩ (বাসস)

সর্বশেষ পোষ্ট

এই ধরনের আরো সংবাদ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here