Thursday, April 18, 2024

মহাসড়কে দূর্ঘটনা রোধে হ্যালো এইচপি এপ্স ১০ মিনিটে পৌছে দিবে সেবা – হাইওয়ে ডিআইজি সালমা বেগম

রাজবাড়ী জার্নাল ডেস্ক: আমরা চাই স্মার্ট পুলিশ হই, জনগণের বন্ধু হই। এবং সেটা মনে প্রানে বিশ্বাস করি । সে জন্য জনগনের সেবায় কাজ করতে চাই, আপনাদের সাথে থাকতে চাই সবসময়।

“আইন মেনে সড়কে চলি স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তুলি” প্রতিপাদ্যে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস ২০২৩ উপলক্ষে হাইওয়ে পুলিশ মাদারীপুর রিজিয়ন এর আয়োজনে জনসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে আলোচনা সভা এবং বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজ পর্যায়ের মাসব্যাপী বিতর্ক প্রতিযোগিতার অংশ হিসেবে ৩০শে অক্টোবর বিকেলে রাজবাড়ী পৌরসভার হলরুমে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন হাইওয়ে পুলিশের ডিআইজি (দঃ বিভাগ) সালমা বেগম পিপিএম ।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ ৯হাজার কিলোমিটার হাইওয়ে সড়ক রয়েছে । ভাঙ্গা থেকে ভোলা মোট ২১ টি জেলায় আমি দায়িত্ব পালন করছি। প্রায় ৩ হাজার হাইওয়ে সড়কে হাইওয়ে পুলিশ কাজ করছে। জনবল সঙ্কট কাটিয়ে এর পরিধি বাড়িয়ে হাইওয়ে পুলিশ স্মার্ট পুলিশে রুপান্তর হয়ে জনগনের সেবায় কাজ করে যাবে।

তিনি বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন ২০২১ সালের মধ্যে উন্নয়নশীল দেশ এবং ২০৪১ সালের মধ্যে স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তুলবেন। তাই স্মার্ট দেশ গড়তে হলে স্মার্ট জনগন দরকার। প্রতিটি মানুষকে স্মার্ট হতে হবে। মহাসড়কে চলাচলের নূন্যতম আইন আমাদের জানতে হবে আর তা আমাদের মেনে চলতে হবে। এতে সড়কে বিশৃঙ্খলা ফিরে আসবে দূর্ঘটনা কমে আসবে। হাইওয়ে পুলিশ মহাসড়কে শৃঙ্খলা , নিরাপত্তা ও দূর্ঘটনা কমিয়ে আনার জন্য কাজ করে । একটি দূর্ঘটনা সারা জীবনের কান্না। চালক ও সহযোগীরা অনেক কষ্ট করে গাড়ী চালান। তাদের বিশ্রামের কম সময়, প্রশিক্ষনের অভাব সহ বিভিন্ন স্বল্পতা রয়েছে। এগুলো মালিক শ্রমিক সমন্বয়ে সমাধান করা দরকার । সড়ক আইন মেনে সকলের চলাচল করলেই দূর্ঘটনা কমে আসবে। আইন মেনে চলার পাশাপাশি আমাদের সচেতনতাও জরুরী ।

সড়ক দূর্ঘটনা রোধে হ্যালো এইচ পি নামে একটি এপ্স ডাউনলোড করে এই এপ্স এর গুরুত্ব ও পরিধি নিয়ে আলোচনা করেন তিনি। হ্যালো এইচ পি এর সাইটে ডি আইজি , এডিশনাল আইজি সহ সিনিয়র কর্মকর্তাদের মোবাইল নাম্বার রয়েছে। হাইওয়ে পুলিশের অসদ্ব্যাবহার পেলে যে কেউ ফোন করে জানাতে পারেন । কোন অভিযোগ পেলে ব্যাবস্থা গ্রহন করা হবে। মহাসড়কে কোন দূর্ঘটনা ঘটলে বা ডাকাতি হলে হ্যালো এইচ পি এপ্স এর মাধ্যমে ম্যাসেস দিলে ১০ মিনিটের মধ্যে পুলিশ পৌছে যাবে ।
তিনি আরোও বলেন, হাইওয়ে পুলিশ নামে ওয়েভ সাইট ও ফেইসবুক পেইজ এ সবাই লাইক দিয়ে রাখবেন। হাইওয়ে পুলিশের কাজ, জনবল ও পরিধি সম্পর্কে জানতে পারবেন। ছোট ছোট প্রামান্যু চিত্র ও শর্ট ফিল্ম রয়েছে সেখানে। ১৩ টি শর্ট ফিল্ম রয়েছে চালকদের সচেতনতার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ন । জনগনকে সম্পৃক্ত করতে পারলে সচেতনতা সৃষ্টি করতে পারলে মহাসড়কে দূর্ঘটনা কমে আসবে। আমরা চাই জনগনের সেবায় জনগনের সাথে থাকতে সবসময় । ‘

হাইওয়ে পুলিশ মাদারীপুর রিজিয়ন পুলিশ সুপার মোঃ শাহিনুর আলম খানের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত ডিআইজি(পূর্ব বিভাগ) ফরিদা ইয়াসমিন, জেলা প্রশাসকের প্রতিনিধি অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোরশেদা খাতুন, পুলিশ সুপার জি.এম. আবুল কালাম আজাদ, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এ.কে.এম শফিকুল মোর্শেদ আরুজ, সিভিল সার্জন ডা: ইব্রাহীম টিটিন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রেজাউল করিম, রাজবাড়ী সড়ক ও জনপদ বিভাগের উপ বিভাগীয় প্রকৌশলী তুষার আহম্মেদ,পৌর মেয়র আলমগীর শেখ তিতু, জেলা বাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক লিটন । এর আগে অতিথিদের উত্তলিয় পরিয়ে বরণ করা হয়। আলোচনা অনুষ্ঠানের পর ট্র্যাফিক আইন লঙ্ঘনের প্রবনতাই সড়ক শৃঙ্খলা নিশ্চিত করণের প্রধান অন্তরায়- শিরোনামে রাজবাড়ী সরকারি কলেজ ও পাংশা সরকারি কলেজে মধ্যকার বিতর্ক প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত হয়। পক্ষে পাংশা সরকারি কলেজ বিজয় লাভ করে। বিতর্ক প্রতিযোগীতায় বিজয়ী ও অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে পুরষ্কার তুলেদেন অতিথিরা ।

সর্বশেষ পোষ্ট

এই ধরনের আরো সংবাদ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here