Thursday, April 18, 2024

শ্রমিকলীগ নেতা হত্যার জের- ঘরের দরজা ভেঙ্গে ৩জনকে কুপিয়ে জখম ২জন আটক

এস এম রাহাত হোসেন ফারুক(বালিয়াকান্দি): রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দিতে শ্রমিকলীগ নেতা হত্যার জের ধরে গভীর রাতে প্রতিপক্ষের বাড়ীতে প্রবেশ করে দরজা ভেঙ্গে ভিতরে ঢুকে ইলিয়াছ মন্ডল (২৭), তার স্ত্রী শাবনাজ (২১) ও তার ভাই অসীম মন্ডল (২২) কে কুপিয়ে ও পিটিয়ে জখম করেছে। তারা বালিয়াকান্দি উপজেলার নারুয়া ইউনিয়নের কোনাগ্রামের ইসলাম মন্ডলের ছেলে ও পুত্রবধু।এসময় রাজ্জাক শেখ ও রশিদ লস্কর নামে ২জনকে আটক করেছে পুলিশ।

সোমবার দিবাগত রাত দেড় টার সময় বালিয়াকান্দি উপজেলার নারুয়া ইউনিয়নের কোনাগ্রামে এ ঘটনা ঘটে।
এলাকাবাসী জানিয়েছেন, গড়াই নদীর চরের সরকারী খাস জমিকে কেন্দ্র করে গত ১৫ অক্টোবর রাতে বালিয়াকান্দি উপজেলার নারুয়া ইউনিয়নের কোনাগ্রামের মৃত আজের মহাজনের ছেলে ও নারুয়া ইউনিয়ন শ্রমিক লীগের সহ-সভাপতি ও মুদিদোকানী আব্দুল আজিজ মহাজন (৪৫) কে পিটিয়ে ও কুপিয়ে হত্যা করে। এরপর থেকেই বিভিন্ন বাড়ীতে ও ক্ষেতের ফসল রাতের অন্ধকারে লুটপাট করছে একটি চক্র। পুলিশী ব্যাপক তৎপরতা ও পাহাড়া থাকা সত্বেও এরা বেপরোয়া ভাবে লুটপাট চালিয়ে আসছে। এ ঘটনায় কয়েকটি মামলা দায়ের হয়েছে।

ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ইলিয়াছ মন্ডল বলেন, সোমবার রাত দেড় টার সময় ২৫-৩০ জনের একটি গ্রুপ দরজা ভেঙ্গে ঘরে ঢোকে। তারা আমাকে ও ভাই অসীম মন্ডলকে কুপিয়ে জখম করাসহ স্ত্রী শাবনাজকে বেধড়ক পিটিয়ে আহত করে।আমাদের আত্নচিৎকারে আশপাশের লোকজন ও টহলে থাকা পুলিশ উদ্ধার করে বালিয়াকান্দি হাসপাতালে ভর্তি করেন। এসময় কর্তব্যরত চিকিৎসক আশঙ্কাজনক হওয়ায় ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করেন। এখানেই চিকিৎসাধীন আছি। পুলিশ তাৎক্ষনিক ভাবে রাজ্জাক শেখ ও রশিদ লস্করকে আটক করে।
বালিয়াকান্দি হাসপাতালের জরুরী বিভাগে কর্মরত ডা. বিদ্যুৎ কুমার বলেন, রাত ৩ টার দিকে তাদেরকে পুলিশ হাসপাতালে আনেন। প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান করে ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়।

বালিয়াকান্দি থানার ডিউটি অফিসার এসআই নাসির উদ্দিন বলেন, এ ঘটনায় ইসলাম মন্ডল বাদী হয়ে ৭ জনের নাম উলেখ্ কারে মামলা দায়ের করেছে।মামলা নং ১২। ২জনকে আটক করে মঙ্গলবার রাজবাড়ী বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

সর্বশেষ পোষ্ট

এই ধরনের আরো সংবাদ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here