Sunday, May 26, 2024

স্বামী হত্যার দায়ে মা-ছেলের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

রাজবাড়ী জার্নাল ডেস্কঃ রাজবাড়ীতে চাঞ্চল্যকর ছিদ্দুকুর রহমান ওরফে ছিদ্দিক সেখ হত্যা মামলায় তার স্ত্রী মোছাঃ ফিরোজা বেগম ও ছেলে সেলিম সেখ (১৮) কে The Penal Code, 1860 এর Section-302 ধারায় দোষী সাব্যস্ত করে প্রত্যেককে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ৬মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড  একই সাথে গুম করার অপরাধে উক্ত আইনের ২০১ ধারায় উভয়কে ৩ বছরের কারাদণ্ড ৫হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ৩ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করেছে আদালত। এ সাজা একই সাথে চলবে ।  রাজবাড়ী থানার মামলা নং- ২৭ ,২৮শে এপ্রিল ২০০৭ ও জি আর মামলা নং- ১৬৪/২০০৭ এবং দায়রা নং- ০১/২০০৯ ।

১৮ই অক্টোবর (বুধবার) রাজবারী অতিরিক্ত দায়রা জজ-১ এর বিচারক জান্নাতুন লিলিফা আক্তার জাহান The Penal Code, 1860 এর Section-302/201/34. ধারায় এ রায় ঘোষণা করেন। রায় ঘোষনার সময় স্ত্রী মোছাঃ ফিরোজা বেগম পলাতক ছিলেন । এ সময় ছেলে সেলিম সেখ কে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয় ।

মামলা ও আদালত সূত্রে জানাগেছে, রাজবাড়ী সদর থানাধীন পাঙ্গাসিয়া গ্রামে ছিদ্দিক সেখের নিজ বাড়ীতে ছেলে ও স্ত্রী মিলে হত্যা করে লাশ মাটিতে পুতে রাখে। ২০০৭ সালের ৪ই এপ্রিল রাত ৩টার দিকে স্বামী স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া ও কথা কাটাকাটি হয় । পরে ছেলে তাদের ছেলে সেলিম সেখ ঘুম থেকে উঠে ঘরে থাকা বাইসেকেলের ফ্রগ দিয়ে তার পিতা ছিদ্দিক সেখের ঘাড়ে বারি মারে পরে ছিদ্দিক সেখের স্ত্রী ছোলদা দিয়ে স্বামীর মাথায় ও পিঠে কোপ মারে । পরে ছিদ্দিক সেক মারা গেলে তার লাশ কাথা ও চাটাই দিয়ে বাড়ীর দক্ষিন পাশে নারকেল গাছের নিচে মাটিতে পুতে রাখে । ২০ থেকে ২৫ দিন পর সেখান থেকে দূর্গন্ধ ছড়ালে পুলিশ এসে মরদেহ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় নিহত ছিদ্দিক সেখের মামাতো বোন আনোয়ারা বেগম বাদী হয়ে রাজবাড়ী থানায় মামলা দায়ের করে ।’

 

সর্বশেষ পোষ্ট

এই ধরনের আরো সংবাদ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here